Post Image
svgfahmesvgJuly 26, 2022svgFiction

প্রাক্তন: পর্ব ২ – Lost On You

**reader discretion is advised**

আগের ভিকটিম কর্পোরেট চাকুরিজীবি ছিলেন, আর এবারের জন লেখক। দুজনের মধ্যে কোন কিছুইতেই কোনরকম মিল নাই। আগেরজনের পরিবার ছিল, আর নতুন ভিকটিম একেবারেই একা। পরিবারের সাথে তেমন কোন যোগাযোগ না থাকলেও, ফ্যান ফলোয়ারের অভাব ছিল না। মোটামুটি বিখ্যাত ছিলেন দেশজুড়ে। নারীভক্তদের সাথে ঘনিষ্ঠতার গুজবও প্রচলিত ছিল বেশ। তাদের মধ্যে কারো মোটিভ আছে কিনা বের করতে বেশ বেগ পেতে হবে, কারণ লিস্ট অনেক লম্বা, আর সব রোম্যান্টিক সম্পর্ক খুঁজে পাওয়াও মুশকিল। যদি খুনী এদের মধ্যে কেউ হয়ে থাকে, আর সম্পর্কটা যদি গোপন কিছু হয়ে থাকে, তবে সে সম্পর্কে জানা একমাত্র জীবিত ব্যক্তি হচ্ছে খুনী স্বয়ং। তবে লেখক সাহেবের ভক্তদের মধ্যে কমবয়সী মেয়েরাই অধিক, এরকম প্রফেশনাল কিলিং এদের দ্বারা সংঘটিত হওয়া একটু অসম্ভবই। লেখকের লেখার খাতাগুলোই তার গলা দিয়ে জোর করে ঠেসে নামানো হয়েছে। যন্ত্রণাদায়ক মৃত্যু। যে শব্দগুলো হাজার হাজার মানুষের অন্তরের সুখ এনে দিয়েছে, সেগুলো দিয়েই শব্দের স্রষ্টাকে মেরে ফেলা হল।

সব তথ্যাদি বের করতে করতে বেশ দেরি হয়ে গেল শরীফের। বস ছাড়া আর সিনিয়র কেউ নেই স্টেশনে। বস অফার দিলেন বাসায় ড্রপ করে দেবার, মানা করলো না শরীফ। সারাদিন অনেক খাটনি গিয়েছে, একটু রিফ্রেশিং কিংবা ভিন্ন আলোচনা দরকার।

কিন্তু গাড়িতে উঠার পর আলোচনার বিষয়বস্তু শরীফের মনঃপূত হল না।

“কী, শরীফ সাহেব? দুই ভিকটিমের মধ্যে মিল কিছু পেলে?”

“স্যার, হত্যার প্যাটার্ন এই যা একটু মিল আছে, কিন্তু এ দুজনের মধ্যে তো কোন সম্পর্কই নেই। আলাদা খুনীও হতে পারে। ইন্সপায়ার্ড কিলিং।”
“হুম, তবে একই খুনীও হতে পারে তাহলে?”
“ফার শট, বাট ইয়েস স্যার, সম্ভাবনা আছে। যদি তাই হয় তবে মনে হচ্ছে সিরিয়াল কিলিং।”
“তারমানে আরও হবে বলতে চাচ্ছো?”
“জ্বি স্যার, আমি তাই ভাবছি।”
“আর এ সবের সাথে তোমার রিংটোনের সম্পর্ক কী বলো তো।”

একটু থেমে গেল শরীফ।
“স্যার, ব্যাপারটা একটু বেশি কাকতালীয় ছিল, কিন্তু এই গানটা ওই ব্যান্ডের সবচেয়ে জনপ্রিয় গান, বেশ কবছর আগেও লোকে অনেক শুনত।”
“শুনো, কাকতালীয় ব্যাপারের কোন বেশি কম নেই। আর কোন ঘটনাই কারণ ছাড়া ঘটে না। এখন গানটা শুনি চলো”
পুলিশের গাড়িতে উচ্চ ভলিউমে বাজতে থাকল Lost On You.

When you get older, plainer, saner
Will you remember all the danger
We came from?
Burnin’ like embers, falling tender
Long before the days of no surrender years ago
And well you know?

So smoke ’em if you got ’em
’cause it’s going down
All I ever wanted was you-
I’ll never get to heaven,
’cause I don’t know how..

Let’s raise a glass or two-
To all the things I’ve lost on you…
Tell me are they lost on you?
Just that you could cut me loose,
After everything I’ve lost on you..

“স্যার, আপনি কখনও ক্যারিয়ারে কোন কিলার পেয়েছিলেন যে কিনা প্রফেশনাল মিউজিশিয়ান?”
বাড়ির কাছে এসে প্রশ্নটা করল শরীফ।
“হ্যাঁ, কয়েকবার দেখেছি এরকম। তবে হয় এক্সিডেন্টাল কিলিং ছিল, নয়তো নেশার ঘোরে। দু একবার ব্যক্তিগত কারণেও হতে দেখেছি, তবে কোনটার দোষই মিউজিককে দেয়া যাবেনা। ”
“মিউজিক প্লেয়ারগুলোর অরিজিন নিয়ে কিছু পেলে?”
“না স্যার, ডেড এন্ড। শেষ যে মালিকের সন্ধান পাওয়া গেছে সেই পারচেজ হয়েছে অনেক আগে। সম্ভবত ক্যাশ স্টোর থেকে নেওয়া। ”
“হুম। তারমানে বলছো যে যদি সিরিয়াল কিলার হয় তাহলে পরের টার্গেট কে হতে পারে সে বিষয়ে আমাদের কোন ধারণাই নেই?”
“না স্যার। উই বেটার হোপ দ্যাট দিস ইজ নট আ সিরিয়াল কিলিং। চলে এসেছি, স্যার। আমাকে নামিয়ে দিলেই হবে এখানে।”

এক রোড আগেই নেমে গিয়েছে শরীফ। সিগারেট কিনে ঢুকবে বাসায়। গলির মাথা থেকে ১৭০ সেকেন্ড সময় লাগে বাসার দরজায় আসতে। ভাবতে ভাবতে আজ বোধহয় একটু বেশি সময়ই লেগে গেল। আর বেল বাজানোর আগে খেয়াল করলো না যে দরজার উপরের ওয়েলকাম লাইটটা বন্ধ।
দুবার, তিনবার বেল বাজাল শরীফ। শান্তার কোন খোঁজ নেই। ফোন দেওয়ার জন্য হাতে মোবাইল নিয়ে দেখল ফোনের ব্যাটারি এম্পটি। চালুই হচ্ছে না। জোরে জোরে দরজায় থাবা দিল শরীফ। কোন জবাব নেই।
এত রাতে বাইরে গেল নাকি শান্তা? গেলে কোথায় যাবে? নাকি আমার দেরি দেখে ঘুমিয়ে পড়ল? অটো লকের জন্য তো বোঝারও উপায় নেই যে ভেতর থেকে লক করা না বাইরে থেকে। আচ্ছা শব্দের আওয়াজে ওর না হোক, বাবুর তো ঘুম ভাঙবে। তারমানে কী, বাবুও নেই? গাড়িও তো পার্ক করা বাইরে। তাহলে…

হুট করে বসের বলা একটা কথা মনে পড়ে গেল।

“কোন ঘটনাই কারণ ছাড়া ঘটে না।”

গলা ফাটিয়ে চিৎকার শুরু করল শরীফ, “শান্তা! শান্তা!”

(চলবে)

svgপ্রাক্তন: পর্ব ১
svg
svgপ্রাক্তন: পর্ব ৩ - প্রেমাতাল

Leave a reply